Text size A A A
Color C C C C
পাতা

কী সেবা কীভাবে পাবেন

 

০৪।    কি সেবা কিভাবে পাবেনঃ-

ক্রঃ নং

সেবার নাম

সেবা প্রাপ্তিতে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র।

সেবা ফি (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে)

আবেদনের স্থান

০১।

উদ্যোক্তাদের চাহিদা অনুযায়ী প্রজেক্ট প্রোফাইল প্রণয়ন ও সরবরাহ।

ক) উদ্যোক্তার ছবি সহ বায়োডাটা।

খ) প্রকল্প স্থানের কাগজপত্র।

গ) জাতীয়তা সনদপত্র।

ঘ) ব্যাংক সলভেন্সি সার্টিফিকেট।

ঙ) প্রকল্পের খসড়া লে-আউট পস্নান।

প্রযোজ্য নয়

আঞ্চলিক কার্যালয়, বিসিক, খুলনা ও সংশিস্নষ্ট জেলায় বিসিক শিল্প সহায়ক কেন্দ্র।

০২।

উদ্যোক্তার চাহিদা অনুযায়ী বিপণন সম্ভাব্যতা সমীÿা প্রণয়ন ও সরবরাহ।

ক) উদ্যোক্তার ছবি সহ বায়োডাটা।

খ) প্রকল্প স্থানের কাগজপত্র।

গ) জাতীয়তা সনদপত্র।

ঘ) ব্যাংক সলভেন্সি সার্টিফিকেট।

ঙ) প্রকল্পের খসড়া লে-আউট পস্নান।

প্রযোজ্য নয়

আঞ্চলিক কার্যালয়, বিসিক, খুলনা ও সংশিস্নষ্ট জেলার বিসিক শিল্প সহায়ক কেন্দ্র কার্যালয়।

০৩।

বিভিন্নজাতীয়দিবসউপলক্ষে ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প পণ্যের মেলা ও প্রদর্শনীর আয়োজন।

ক) উৎপাদনকারীর ছবি সহ বায়োডাটা।

খ) উৎপাদিত পণ্যের বিবরণ ও নমুনা প্রদান।

নির্ধারিত নয়

বিসিক শিল্প সহায়ক কেন্দ্র ও আঞ্চলিক কার্যালয়, বিসিক, খুলনা।

০৪।

শিল্প নগরীতে অবস্থিত শিল্প ইউনিটের লে-আউট পস্নান অনুমোদন(৬তলা পর্যমত্ম)।

ক) শিল্প নগরী জমি বরাদ্দ পত্র।

খ) পজেশন সার্টিফিকেট।

গ) মেশিনের বিবরণ।

ঘ) প্রকৌশলী কর্তৃক প্রস্ত্ততকৃত কারখানার লে-আউট পস্নান ও ষ্ট্রাকচারের ডিজাইন।

প্রয়োজন অনুযায়ী ফি নির্ধারিত হয়ে থাকে।

শিল্প নগরী কার্যালয় সমূহ।

= ৪ =

 

ক্রঃ নং

সেবার নাম

সেবা প্রাপ্তিতে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র।

সেবা ফি

(প্রযোজ্য ক্ষেত্রে)

আবেদনের স্থান

০৫।

শিল্প নগরীতে অবস্থিত শিল্প ইউনিটের মালিকানা হসত্মামত্মর, নাম, খাত ও সাংগঠনিক কাঠামো পরিবর্তন অনুমোদন এবং সুপারিশ।

ক) শিল্প নগরী জমি/পস্নট বরাদ্দ পত্র ও পজেশন সার্টিফিকেট।

খ) শিল্প নগরী বিভিন্ন খাতে পাওনা আদায়ের হালনাগাদ প্রত্যয়ন পত্র।

গ) উদ্যোক্তা কর্তৃক ২০০/-টাকার ননজুডিশিয়াল ষ্ট্যাম্পে লিখিত অংগীকারণামা ও নোটারী পাবলিক।

ঘ) জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি।

ঙ) প্রজেক্ট প্রোফাইল ও লে-আউট পস্নান।

চ) ব্যাংক সমুহ কর্তৃক অনাপত্তি সার্টিফিকেট(ঋণ গ্রহণের ক্ষেত্রে)

ছ) খসড়া দলিল।

জ) কোম্পানীর ক্ষেত্রে মেমোরেন্ডাম অব আর্টিকেলস ও অংশীদারী কারবারের ক্ষেত্রে অংশীদারিত্ব চুক্তিপত্র

নাম ও খাত পরিবর্তনের জন্য কোন ফি নেই তবে মালিকানা হসত্মামত্মর অনুমোদন হওয়ার পর ক্রয়কৃত জমির মূল্যের স্থানভেদে ৫০% থেকে ২০০% ফি প্রদান করতে হবে।

শিল্প নগরী কার্যালয় সমূহ।

০৬।

শিল্প নগরী সমূহের পস্নট বরাদ্দ প্রদান (পস্নট খালি থাকা্ সাপেক্ষে)।

১) নির্ধারিত আবেদন ফরম ও প্রসপেকটাস ক্রয়ের রশিদের কপি।

২) উদ্যোক্তার সাম্প্রতিক তোলা পাসপোর্ট আকারের ছবি(২কপি)

৩) উদ্যোক্তার জাতীয়তার সনদপত্র (ইউ পি চেয়ারম্যান/পৌরসভার চেয়ারম্যান/ সিটি কর্পোরেশন এলাকায় ওয়ার্ড কমিশনার/ প্রথম শ্রেণীর গেজেটেড অফিসার কর্তৃক প্রদত্ত) ও জাতীয় পরিচয় পত্র এর সত্যায়িত ফটোকপি জমা দিতে হবে।

৪) ট্রেড লাইসেন্স।

৫) আবেদনকারীর আয়কর সার্টিফিকেট(টিআইএন নম্বর সহ)

৬) প্রকল্পের সম্ভাব্যতা প্রতিবেদন (নমুনা অনুযায়ী)।

৭) প্রকল্পের বাসত্মবায়ন তফসিল (প্রসত্মাবিত)।

৮) বিল্ডিং লে-আউট পস্নান(খসড়া)

৯) মেশিনারীলে-আউট পস্নান(খসড়া)

১০) নিজস্ব অর্থে স্থাপন করা প্রকল্পের ক্ষেত্রে ১৫০/- টাকার নন-জুডিশিয়াল ষ্ট্যাম্পে অঙ্গীকারণামা এবং ব্যাংক লেনদেন প্রতিবেদন।

১১) ব্যাংক ঋণে স্থাপন করা প্রকল্পের ক্ষেত্রে অর্থ প্রদানকারী ব্যাংক/প্রতিষ্ঠান থেকে উদ্যোক্তার আর্থিক স্বচ্ছলতার প্রত্যয়নপত্র ও ব্যাংক লেনদেন প্রতিবেদন

১২) অংশীদারিত্ব প্রকল্পের ক্ষেত্রে রেজিষ্ট্রিকৃত অংশীদারী দলিল।

১৩) লিমিটেড কোম্পানীর ক্ষেত্রে জয়েন্ট ষ্টক কোম্পানীর রেজিষ্ট্রেশন এবং মেমোরেন্ডাম অব এসোসিয়েশন এন্ড আর্টিক্যালস অব এসোসিয়েশন।

১৪) প্রকল্প বাসত্মবায়ন সময় পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড় পত্র।

১৫) ডাউন পেমেন্ট এর সমপরিমান অর্থ জামানত বাবদ ক্রসড চেক/পে অর্ডার/ ব্যাংক ড্রাফট (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে)।

১৬) বর্ণিত কাগজ পত্রাদি সহ ২(দুই)সেট আবেদন পত্র জমা দিতে হবে।

স্থানভেদে নির্ধারিত ফি কিসিত্মতে প্রদান করতে হবে। ১ম দুই কিসিত্ম ডাউন পেমেন্ট হিসাবে জমা দিতে হবে। পরবর্তী প্রতি ৬ মাস অমত্মর কিসিত্ম দিতে হবে। পস্নট বরাদ্দ প্রাপ্তির ৩০ দিনের মধ্যে নতুন শিল্প কারখানার জন্য নকশা ও প্রাক্কলন দাখিল করতে হবে। নকশা অনুমোদনের ৯০দিনের মধ্যে নির্মাণ কাজ সমাপ্ত করে ৬ মাসের মধ্যে বানিজ্যিক উৎপাদন শুরু করতে হবে।

 

শিল্প নগরী কার্যালয় সমূহ।